1. ashik@amaderbanglarsangbad.com : Staf Reporter : Staf Reporter
  2. akhikbd@amaderbanglarsangbad.com : Ashikur Rahman : Ashikur Rahman
  3. babul6568@gmail.com : অনলাইন ডেক্স : অনলাইন ডেক্স
  4. admin@amaderbanglarsangbad.com : belal :
  5. sv.e.t.a.m.ahovits.k.aya.8.2@gmail.com : danniellearchdal :
  6. lima@webcodelist.com : Khadizatul kobra Lima : Khadizatul kobra Lima
  7. rkp.jahan@gmail.com : Staf Reporter : Staf Reporter
  8. abc@solarzonebd.com : Staf Reporter : Staf Reporter
  9. tahershaghata@gmail.com : Abu Taher : Abu Taher
সাদুল্লাপুরের পল্লীতে কিস্তির টাকা আদায়কে কেন্দ্র করে মারপিট করে টাকা, চেক বইয়ের পাতা ও সাদা স্টাম্পে স্বাক্ষর নেওয়ার অভিযোগ - আমাদের বাংলার সংবাদ




সাদুল্লাপুরের পল্লীতে কিস্তির টাকা আদায়কে কেন্দ্র করে মারপিট করে টাকা, চেক বইয়ের পাতা ও সাদা স্টাম্পে স্বাক্ষর নেওয়ার অভিযোগ

  • সংবাদ সময় : Thursday, 5 November, 2020
  • ৫১ বার দেখা হয়েছে
স্টাফ রিপোর্টার, গাইবান্ধা:- গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলার পল্লীতে কিস্তির টাকা আদায়কে কেন্দ্র করে আজাদুল নামে একজনকে মারপিট, টাকা ছিনতাই, সাদা স্টাম্পে জোর করে স্বাক্ষর ও চেক বইয়ের পাতা ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে দৌলতপুর মানব উন্নয়ন সংস্থার নামে। এ ঘটনার পর আজাদুল হক সরকার ৪ জনের নাম উল্লেখ করে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছে।
থানায় অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার নাপিত বাজারে অবস্থিত দৌলতপুর মানব উন্নয়ন সংস্থা নামে একটি সমিতির কাছ থেকে আজাদুল হক সরকার স্ত্রী আমিনা বেগমের নামে ৫০ হাজার টাকা ঋীণ গ্রহণ করেন। ঋীণ গ্রহণ করার পর প্রায় প্রতি সপ্তাহে ১২৫০ টাকা করে ৩২ কিস্তি উক্ত সমিতিকে প্রদান করেন। এরই মধ্যে কোভিট-১৯ করোনা ভাইরাস শুরু হলে কিস্তি দিতে আর্থিক সমস্যায় পড়েন। যার কারণে পরবর্তীতে উক্ত কিস্তির টাকা আজ অবধি দিতে পারেননি। এরপরও উক্ত সমিতির টাকা পরিষোধ করতে প্রায়ই বাড়ীতে ও চলার পথে চাপ সৃষ্টি করে আসছে সমিতির লোকজনেরা। একপর্যায়ে গত ২১ অক্টোবর বৃহস্পতিবার রাত্রি ৯ ঘটিকার সময় গাইবান্ধা থেকে বাড়ীতে ফেরার পথে পথিমধ্যে নাপিতের বাজার নামক স্থানে পূর্ব থেকে ওৎপেতে থাকা আজাদুল ইসলাম, রবিউল ইসলাম, শাহারুল মিয়া ও শাজাহান মিয়া গতিরোধ করিয়া ভ্যান থেকে নামিয়া এলোপাথাড়ি মারপিট করতে থাকে। একপর্যায়ে পকেটে থাকা ব্যবসার ১, ১০,০০০ (এক লাখ দশ হাজার পাঁচশত) টাকা ও সোনালী ব্যাংকের চেক বইয়ের ৩টি পাতা জোরপূর্বক ছিনিয়ে নিয়ে জীবন নাশের হুমকি দিয়ে ১০০ টাকার ননজুডিশিয়াল ৬টি সাদা স্টাম্পে স্বাক্ষর করে নেয়।
ভুক্তভোগী আজাদুল হক সরকার এ প্রতিবেদকে বলেন, আমি আমার স্ত্রী আমিনাকে দৌলতপুর মানব উন্নয়ন সংস্থার সদস্য করে ঋীণ গ্রহণ করেছি। আমার পারিবারিক সমস্যার কারণে কয়েকটি কিস্তি দিতে না পারায় উক্ত সমিতির লোকজন আমাকে মারপিট করে টাকা, চেক বইয়ের ৩টি পাতা ও ৬টি সাদা স্টাম্পে জোর করে স্বাক্ষর নিয়েছে। আমি এর সঠিক বিচার চাই।
তবে সরেজমিন আরও জানা যায়, একটি নিবন্ধিত সংস্থা দৌলতপুর মানব উন্নয়ন সংস্থা। যাহার রেজিষ্ট্রেশন নং-১০৫৮। কিন্তু দৌলতপুর মানব উন্নয়ন সংস্থার নামে সাপ্তাহিক কিস্তি ছাড়াও মাসিক সুদের ব্যবসা চালিয়ে আসার অভিযোগও রয়েছে। উক্ত সমিতির আজাদুল ইসলাম, রবিউল ইসলাম, শাহারুল ইসলাম ও শাজাহান মিয়ার সুদের ব্যবসার কারণে এলাকায় প্রতিনিয়ত আইনশৃঙ্খলার অবনতি হচ্ছে এবং দ্রুত উক্ত সমিতির কার্যক্রম বিষয়ে খোঁজখবর নেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন সচেতন এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগীগণ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই ধরনের আরো সংবাদ