1. ashik@amaderbanglarsangbad.com : Staf Reporter : Staf Reporter
  2. akhikbd@amaderbanglarsangbad.com : Ashikur Rahman : Ashikur Rahman
  3. babul6568@gmail.com : অনলাইন ডেক্স : অনলাইন ডেক্স
  4. admin@amaderbanglarsangbad.com : belal :
  5. sv.e.t.a.m.ahovits.k.aya.8.2@gmail.com : danniellearchdal :
  6. lima@webcodelist.com : Khadizatul kobra Lima : Khadizatul kobra Lima
  7. rkp.jahan@gmail.com : Staf Reporter : Staf Reporter
  8. abc@solarzonebd.com : Staf Reporter : Staf Reporter
  9. tahershaghata@gmail.com : Abu Taher : Abu Taher
গাইবান্ধায় মাটিচাপায় এক শ্রমিকের মৃত্যু




গাইবান্ধায় মাটিচাপায় এক শ্রমিকের মৃত্যু

  • সংবাদ সময় : Friday, 20 November, 2020
  • ১২ বার দেখা হয়েছে

রাজারহাট (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি \ কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলার সদর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান এনামুল হকের বিরুদ্ধে অর্থের বিনিময়ে প্রার্থীর জাতীয় পরিচয় পত্র জালিয়াতি করে ও জাল কাগজপত্রে নামমাত্র নিয়োগ বোর্ড দেখিয়ে গ্রাম পুলিশ নিয়োগের অভিযোগ উঠেছে। এঘটনায় একই ইউনিয়নের ওয়ার্ড সদস্য শহিদুল ইসলাম বাবু বিভিন্ন দপ্তরে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অভিযোগ করায় ওই ওয়ার্ডের বরাদ্দকৃত প্রকল্পের সহায়তা বন্ধ করে দিয়েছেন ইউপি চেয়ারম্যান। ।
অভিযোগ জানা গেছে,উপজেলার সদর ইউনিয়নের হরিশ^র তালুক মৌজার গ্রাম পুলিশ প্রফুল্ল কুমার এর মৃত্যু জনিত কারনে পদ শুন্য হয়। সম্প্রতি উক্ত শুন্যপদে ওই গ্রামের মৃত নির্মল কুমার রায়ের পুত্র নিপ্পন কুমার রায়কে নাম পাল্টিয়ে ভূয়া ৮ম শ্রেণী পাস সার্টিফিকেট ও নকল জাতীয় পরিচয়পত্র দিয়ে নিয়োগ প্রদান করেন সদর ইউপি চেয়ারম্যান এনামুল হক। নিপ্পন কুমার স্থানীয় সরকারি মীর ইসমাইল হোসেন কলেজ এর একাদশ বর্ষের মানবিক বিভাগের ছাত্র। তার জন্ম তারিখ-১০সেপ্টেম্বর ২০০৩ইং। অথচ জালিয়াতির মাধ্যমে তার নাম পরিবর্তন করে গৌতম রায় নামে উপজেলার ঠাটমারী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২০০৯ইং সনে অষ্টম শ্রেণী পাস দেখিয়ে ভূয়া সার্টিফিকেট ও ভূয়া জাতীয় পরিচয় পত্র তৈরি করে তাকে উক্ত পদে নিয়োগ দেয়া হয়।
৬মে ২০১৫ইং প্রকাশিত বাংলাদেশ গেজেট অতিরিক্ত অনুযায়ী নিয়োগ বিধি উপেক্ষা করে কোন প্রচার প্রচারনা ছাড়াই গোপনে নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পূন্ন করায় আগ্রহী ও যোগ্যতা সম্পূন্ন প্রার্থীরা নিয়োগে অংশ গ্রহণ করতে পারেননি বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে। এছাড়া যেসব কর্মকর্তার উপস্থিতিতে নিয়োগ (মনোনয়ন) বোর্ড গঠন করার নিয়ম, বোর্ডে তাদের অনেকেই অনুপস্থিত ছিলেন বলে জানা গেছে।
শহিদুল ইসলাম বাবু বলেন,এঘটনায় রাজারহাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা,দুর্নীতি দমন কমিশন সহ বিভিন্ন দপ্তরে আমি ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অভিযোগ করায় আমার ওয়ার্ডের বরাদ্দকৃত প্রকল্পের সহায়তা বন্ধ করে দিয়েছে চেয়ারম্যান
এবিষয়ে রাজারহাট ইউনিয়ন চেয়ারম্যান এনামুল হক বলেন,গৌতম নামের যে ছেলেটিকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে সে ঠাটমারী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে অষ্টম শ্রেণী পাস করেছে। টাকা নিয়ে নিয়োগ প্রদানের অভিযোগ তিনি অস্বীকার করেন।
রাজারহাট থানাার অফিসার ইনচার্জ রাজু সরকার জানান,গ্রাম পুলিশ নিয়োগের কথা শুনেছি, তবে নিয়োগ বোর্ডে থাকতে পারিনি।
কুড়িগ্রামের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো:হাফিজুর রহমান বলেন,রাজারহাট ইউএনও তদন্ত করে রিপোর্ট জমা দিয়েছেন। কালেক্টরেট কর্মচারিদের কর্মবিরতি চলছে।এটি শেষ হলে অবশ্যই আইনগতভাবে ব্যবস্থা নেয়া হবে।#

মালেক সরকার
রাজারহাট,কুড়িগ্রাম।
তারিখ-২০-১১-২০২০।

 

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই ধরনের আরো সংবাদ