1. ashik@amaderbanglarsangbad.com : Staf Reporter : Staf Reporter
  2. akhikbd@amaderbanglarsangbad.com : Ashikur Rahman : Ashikur Rahman
  3. babul6568@gmail.com : অনলাইন ডেক্স : অনলাইন ডেক্স
  4. admin@amaderbanglarsangbad.com : belal :
  5. sv.e.t.a.m.ahovits.k.aya.8.2@gmail.com : danniellearchdal :
  6. sv.e.ta.m.ah.ov.i.tsk.a.y.a82@gmail.com : kimberleybogan9 :
  7. lima@webcodelist.com : Khadizatul kobra Lima : Khadizatul kobra Lima
  8. rkp.jahan@gmail.com : Staf Reporter : Staf Reporter
  9. nimushamim46@gmail.com : Shamim Nimu : Shamim Nimu
  10. abc@solarzonebd.com : Staf Reporter : Staf Reporter
  11. tahershaghata@gmail.com : Abu Taher : Abu Taher
ফরিদ মোস্তফার মামলায় তদন্তের নামে সময়ক্ষেপন করা হচ্ছে: বিএমএসএফ - আমাদের বাংলার সংবাদ




ফরিদ মোস্তফার মামলায় তদন্তের নামে সময়ক্ষেপন করা হচ্ছে: বিএমএসএফ

  • সংবাদ সময় : Monday, 7 December, 2020
  • ৬৫ বার দেখা হয়েছে
ঢাকা সোমবার ৭ ডিসেম্বর ২০২০: ওসি প্রদীপের বিরুদ্ধে সাংবাদিক ফরিদ মোস্তফার মামলায় তদন্তের নামে সময়ক্ষপন করা হচ্ছে বলে বিএমএসএফের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে। টেকনাফের বহুল আলোচিত ওসি প্রদীপ সহ ২৬ পুলিশ কর্মকর্তা ও সদস্যসহ ৪ মাদক কারবারীর বিরুদ্ধে সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তফা খানের দায়েরকৃত মামলার প্রতিবেদন দিতে ৩০ দিন সময়ের আবেদন করছেন পিবিআই তদন্তকারী অফিসার কায়সার হামিদ। তদন্তকারী কর্মকর্তা তদন্তের নামে সময়ক্ষেপন করায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম বিএমএসএফ ও সাংবাদিক নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটি।
সোমবার দুপুরে বিএমএসএফের প্রতিষ্ঠাতা ও কেন্দ্রীয় সদস্য সচিব আহমেদ আবু জাফর এক বিবৃতিতে বলেন, ফরিদ মোস্তফার ওপর বর্বরোচিত পুলিশি নির্যাতন দেশব্যাপী আলোচিত। তদন্তের নামে সময়ক্ষেপন না করে দ্রুত তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করে দোষিদের বিচারের আওতায় আনার দাবি করা হয়।
সোমবার ৭ ডিসেম্বর কক্সবাজার আদালতে প্রতিবেদন দেয়ার জন্য দিন ধার্য্য থাকায় তদন্তকারী কর্মকর্তা আরো ৩০ দিন সময় চেয়ে আবেদন করেন। আদালতের বিজ্ঞ বিচারক জেরিন সুলতানা তদন্তকারী কর্মকর্তার চাওয়া ৩০ দিন সময় প্রদান করেন।
এদিকে তদন্তের নামে সময়ক্ষেপন ও বিচার নিয়ে স্থানীয় সাংবাদিকরা ও ফরিদ মোস্তফার পরিবার শংকা প্রকাশ করেন।
প্রদীপের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশের জের ধরে গত বছরের ২১ সেপ্টেম্বর ওসি প্রদীপ কুমার তার দলীয় বাহীনি নিয়ে সাংবাদিক ফরিদ মোস্তফাকে রাজধানীর মিরপুর এলাকা থেকে গ্রেফতার করে কক্সবাজারে নিয়ে আসেন। এরপর প্রদীপ বাহিনী তার ওপর চালায় বর্বরোচিত হামলা এবং ৬টি মামলা ঠুকে অসুস্থ অবস্থায় কারাগারে পাঠান। দীর্ঘ ১১ মাস ৫দিন কারাভোগের পর জামিনে বেরিয়ে গত ৮ সেপ্টেম্বর নির্যাতনকারী পুলিশ ও সহযোগিদের বিরুদ্ধে একটি মামলা নং ৬৬৬/২০২০ দায়ের করেন।
ফরিদ মোস্তফার মামলাটি দ্রুত তদন্ত করে বিচারের আওতায় আনার দাবি আজ সারাদেশের সাংবাদিকদের প্রাণের দাবিতে পরিনত হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই ধরনের আরো সংবাদ