1. ashik@amaderbanglarsangbad.com : Staf Reporter : Staf Reporter
  2. akhikbd@amaderbanglarsangbad.com : Ashikur Rahman : Ashikur Rahman
  3. babul6568@gmail.com : অনলাইন ডেক্স : অনলাইন ডেক্স
  4. admin@amaderbanglarsangbad.com : belal :
  5. sv.e.t.a.m.ahovits.k.aya.8.2@gmail.com : danniellearchdal :
  6. sv.e.ta.m.ah.ov.i.tsk.a.y.a82@gmail.com : kimberleybogan9 :
  7. lima@webcodelist.com : Khadizatul kobra Lima : Khadizatul kobra Lima
  8. rkp.jahan@gmail.com : Staf Reporter : Staf Reporter
  9. nimushamim46@gmail.com : Shamim Nimu : Shamim Nimu
  10. abc@solarzonebd.com : Staf Reporter : Staf Reporter
  11. tahershaghata@gmail.com : Abu Taher : Abu Taher
গোবিন্দগঞ্জে যুবকের রহস্যজনক মৃত্যু - আমাদের বাংলার সংবাদ




গোবিন্দগঞ্জে যুবকের রহস্যজনক মৃত্যু

  • সংবাদ সময় : Monday, 1 March, 2021
  • ৭১ বার দেখা হয়েছে

 

 

ফারুক হোসেন :
গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার চাপড়ীগঞ্জরে নওদাপাড়া গ্রাম থেকে শাহারুল (২৫) নামের এক যুবকের রহস্যজনক মৃত্যুর হয়েছে। নিহত যুবক দিনাজপুর জেলার ঘোড়াঘাট থানার মিতালী গুচ্ছগ্রামের হাতেম মন্ডলের ছেলে।

রবিবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা ৭টার দিকে গোবিন্দগঞ্জ থানা পুলিশ উপজেলার কামারদহ ইউনিয়নের ওই গ্রাম থেকে যুবকের মরদেহ উদ্ধার করে থানায় আনে।

স্থানীয় ও থানা সূত্রে জানা যায়, রোববার সন্ধ্যার দিকে আফতাব হোসেনের বাড়ির সামনের রাস্তার ধারে অজ্ঞাত যুবকের মরদেহ পরে থাকতে দেখে। এসময় স্থানীয়রা গোবিন্দগঞ্জ থানায় খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থল পৌঁছায়। সেখানে গিয়ে তারা জানতে পারে ওই গ্রামের মৃত তমিজ উদ্দিনের ছেলে আফতাব হোসেন (৬০) এর আত্মীয় হন নিহত যুবক। পরে পুলিশ মরদেহের ময়নাতদন্তের জন্য থানায় আনে।

নিহতের বড় বোন ফাতেমা জানান, দীর্ঘ পাঁচ বছর ধরে শাহারুল ঢাকায় চাকরি করত। ২৭ ফেব্রুয়ারি শনিবার বাড়িরর উদ্দেশ্যে রাত্রি ১০টায় ঢাকা ছাড়ে সে। পথিমধ্যে মোকমতলার পর যাত্রীবাহী গাড়ির চাকা নষ্ট হয়। তখন রাত প্রায় ৩টা বাজে। গাড়ি সারাতে সময় লাগবে বিধায় সে চাপড়ীগঞ্জের নওদা পাড়ায় আমার আত্মীয় আফতাব দাদার বাড়িতে যায়।

সেখানে পৌঁছার পর রবিবার সকাল ৭টার দিকে শাহারুল আমার ফোনে এসএমএস করে যে,আপু আমি বড় বিপদে। বাড়ি যাবার শুম গাড়ির চাকা পামছার হয় বুড়ির বাড়ির কাছে। ওর নাতি দেকা করার জননে ডাক ছীলো ওরা আমাক আটকে থুছে মুই বিয়ে করুমনে ওর ঘেরে কথাই রাজি হয় কয় আমার ছোট ভাই ঐই যদি বিয়ে করে আমরা ভালো করে অনুশ ঠান করমু আমাক এই যাইগা থেকে বাই কর এই কথা ওরা শবাই যুকতি করে ফাশাছে ওর নাতিক দিয়ে এরপর আর কোনো যোগাযোগ হয়নি আমাদের সাথে। তারপর সন্ধ্যায় মৃত্যুর সংবাদ পাই।

ফাতেমা আরো জানায়, আফতাবের ছেলে সৌদি প্রবাসী জোনাব আলীর মেয়ের সাথে কিছুদিন আগে আমার ভাইয়ের বিয়ের প্রস্তাব দেয়। এরপর আর কথা এগোয়নি। আজ আমার ভাইকে ওরা ডেকে এনে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে হত্যা করেছে। আমরা এই হত্যার সুষ্ঠু বিচার চাই।

এদিকে গোবিন্দগঞ্জ থানার এসআই এসআই আরিফ ও এসআই ইউসুফের সাথে কথা হলে তারা জানান,স্থানীয়ভাবে খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে আফতাব হোসেনের বাড়ির সামনে রাস্তার পাশ থেকে মৃতদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসি। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই ধরনের আরো সংবাদ