1. ashik@amaderbanglarsangbad.com : Staf Reporter : Staf Reporter
  2. akhikbd@amaderbanglarsangbad.com : Ashikur Rahman : Ashikur Rahman
  3. babul6568@gmail.com : অনলাইন ডেক্স : অনলাইন ডেক্স
  4. admin@amaderbanglarsangbad.com : belal :
  5. sv.e.t.a.m.ahovits.k.aya.8.2@gmail.com : danniellearchdal :
  6. sv.e.ta.m.ah.ov.i.tsk.a.y.a82@gmail.com : kimberleybogan9 :
  7. lima@webcodelist.com : Khadizatul kobra Lima : Khadizatul kobra Lima
  8. rkp.jahan@gmail.com : Staf Reporter : Staf Reporter
  9. nimushamim46@gmail.com : Shamim Nimu : Shamim Nimu
  10. abc@solarzonebd.com : Staf Reporter : Staf Reporter
  11. tahershaghata@gmail.com : Abu Taher : Abu Taher
সাঘাটায় জমিজমা বিরোধে ধান ক্ষেতে পানি বন্ধ করে দেয়ায় ২০ বিঘা জমির ফসল নষ্টের শঙ্কার অভিযোগ ! - আমাদের বাংলার সংবাদ




সাঘাটায় জমিজমা বিরোধে ধান ক্ষেতে পানি বন্ধ করে দেয়ায় ২০ বিঘা জমির ফসল নষ্টের শঙ্কার অভিযোগ !

  • সংবাদ সময় : Sunday, 4 April, 2021
  • ৫৯ বার দেখা হয়েছে

সাঘাটা সংবাদদাতা : সাঘাটার শিমুলবাড়িয়া গ্রামে জমিজমা বিরোধে দুই ভাইয়ের দ্বন্ধে ধান ক্ষেতে পানি বন্ধ করে দেয়ায় ২০ বিঘা জমির ফসল নষ্টের শঙ্কার অভিযোগ উঠেছে।

 

 

ঘটনাটি সহোদর দুই ভাইয়ের হলেও তাদের কারনে হাবিবুর নামের জনৈক ব্যক্তির স্যালো প্রকল্পের অধীনে কমপক্ষে ১৫ পরিবার তাদের জমিতেও পানি সেচ দিতে পারছেনা। এঘটনায় উভয় পক্ষের লোকজনের মাঝে উত্তেজনা বিরাজ করছে। এঘটনাকে কেন্দ্র করে আব্দুল ওয়াহেদ গং আব্দুল হাদীর ল্যাট্টিন ভাংচুর করেছে। ফলে আব্দুল হাদীর পরিবার চরম বিপাকে পড়েছে।ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার ।

 

 

জানা গেছে, দীর্ঘদিন থেকে উপজেলার শিমুলবাড়িয়া গ্রামে আব্দুল হাদী ও তার সহোদর ছোট ভাই আব্দুল ওয়াহেদেও সাথে জমিজমা নিয়ে বিরোধ নিয়ে মামলা মোকদ্দমা চলে আসছে। সেই জের ধরে ছোট ভাই আব্দুল ওয়াহেদ বিবাদমান জমিতে ড্রেজার মেশিন দিয়ে মাটি কাটতে থাকলে বড় ভাই আব্দুল হাদী মাটি কাটা বন্ধ করে দেয়।

 

 

গত এক সপ্তাহ পূর্বে আব্দুল হাদী তার ৫৬ শতক জমির ইরির জমিতে হাবিবুর রহমনের স্যালো মেশিন থেকে পানি নিতে ধরলে আমার সাথে শত্রæতার জের ধরে ওয়াহেদ হাবিবুরের স্যালো মেশিনটি বন্ধ করে দেয়। বাক বিতন্ডার এক পর্যায়ে হাদীর ক্ষেতের ড্রেন ভেঙ্গে ফেলে দেয়। ফলে ওই এলাকার কমপক্ষে ১৫ পরিবার তাদের ধানের ক্ষেতে পানি সেচ নিতে পারছেনা। পানি নেয়া বন্ধ হওয়ায় কমপক্ষে ২০ বিঘা জমির উঠতি ইরি ধান নষ্ট হবার উপক্রম হয়েছে।

 

 

ভুক্তভোগি পরিবার গুলো জানান, দুই ভাইয়ের দ্বন্ধে আমাদের ফসলের ক্ষেতে পানি নিতে পারছিনা।অনেক চেষ্টা করেও আমরা দুই ভাইয়ের মাঝে সমঝোতা আনতে পারিনি। দুচারদিনের মধ্যে পানি দিতে না পারলে ধান ক্ষেত নষ্ট হয়ে যাবে। ফলন অর্ধেকও পাবোনা। এদায় কে নিবে।

 

 

এব্যাপারে আব্দুল হাদীর সাথে কথা বললে তিনি জানান, আমি যে জমিতে মাটি কাটতে বাধা দিয়েছি তা নিয়ে ওয়াহেদ এর সাথে দ্বন্ধ চলছে। তিনি আরো বলেন, ওয়াহেদ আবার আমার ইরির ক্ষেতে পানি নিতে দিচ্ছেনা। ওরা লোকজন বেশি কথায় কথায় আমাকে ও আমার পরিবারের লোকজনকে মারতে আসে। গতকাল আমি বাড়ি না থাকার সুযোগে আমার একটি মাত্র ল্যাট্টিন ভেঙ্গে ফেলে দিয়েছে। সে কারনে আমরা পরিবারের ৬/৭ জন লোক অন্যের বাড়ির ল্যাট্টিন ব্যবহার করছি। সে আরো জানায় ওয়াহেদ ও তার পরিবারের দ্বারা আমার ও পরিবারের বড় ধরনের জান মালের ক্ষতি হতে পারে। তিনি সুষ্ঠ বিচার প্রার্থনা করেন।

 


এব্যাপারে আব্দুল ওয়াহেদ এর সাথে কথা বললে তিনি জানান,আমি যদি ড্রেজার দিয়ে মাটি কাটতে না পারি তাহলে ওকে ওর ধান ক্ষেতে পানি নিতে দিবনা। ওর থেকে শুনেন ও যদি মাটি কাটতে দেয় তাহলে আমি পানি নিতে দিবো। তাছাড়া আমি কিছুই শুনবোনা। সে আরো জানায় ও আমার ঘরের টিনে কোপ ডাং করেছে।

 

 

এব্যাপারে ইউপি সদস্য নজরুলের সাথে কথা বললে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, দুই ভাইয়ের বিরোধের বিষয়টি নিয়ে একাধিকবার সমঝোতার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়েছি। ওরা এমন লোক যে সবকিছু মানলাম কিন্তু তালগাছ আমার। আরো জানান, ওদের দুই ভাইয়ের দ্বন্ধে এলাকার আরো বেশ কিছু পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই ধরনের আরো সংবাদ